গ্যাস্ট্রিক ও বুক জ্বালাপোড়ার প্রাকৃতিক সমাধান ন্যাচারলস এর ভেষজ পণ্যে। গ্যাস্ট্রিক থেকে মিলবে এবার স্থায়ী নিরাময়।

গ্যাস্ট্রিকের সমস্যায় কম-বেশি ভোগেননি এমন বাঙ্গালী খুঁজে পাওয়া যাবে না।

পেটে গ্যাস, গলা-বুক জ্বলা, অরুচি, বমি ভাব, পেট ফুলে ওঠা বা চিনচিন করে ব্যথা—এসব সমস্যা হলেই আমরা গ্যাস্ট্রিকের ঔষধ অথবা অ্যাসিডিটির সিরাপ খাই। এতে কিছুটা আরাম মেলে কিন্তু সমস্যা থেকেই যায়।

ওমিপ্রাজল-জাতীয় গ্যাস্ট্রিকের ওষুধ দিনের পর দিন খাওয়া বিপজ্জনক। এতে পাকস্থলীর পিএইচ পরিবর্তিত হয়ে যায়, ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ে, রক্তশূন্যতা দেখা দিতে পারে। হাড় ক্ষয় এবং শরীরে রোগজীবাণু প্রবেশের সক্ষমতা বেড়ে যায়। এমনকি কিডনি মারাত্মকভাবে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

তাই সময় থাকতেই নিন প্রাকৃতিক সুরক্ষা।

ন্যাচারলস এর গ্যাস্ট্রিক নিরময় প্যাকেজে আছে ৪ টি অতি মূল্যবান ভেষজ পণ্য। যা প্রাকৃতিকভাবে গ্যাস্ট্রিকসহ অন্যান্য রোগ থেকে আমাদের সুরক্ষা প্রদান করে।

১।ন্যাচারালস ত্রিফলা-১২৫ গ্রাম

২।ন্যাচারালস থানকুনি-১০০ গ্রাম

৩।ন্যাচারালস তুলসী-১২৫ গ্রাম

৪।ন্যাচারালস আদা গুড়া-১২৫ গ্রাম

ত্রিফলাঃ

ত্রিফলা গ্যাস্ট্রিক সমস্যার সমাধানে খুবই কার্যকর। ত্রিফলায় থাকা আমলকি হজমে সাহায্য করে ও স্টমাক অ্যাসিগে ব্যালেন্স বজায় রাখে। গবেষণায় দেখা গেছে, ত্রিফলা গ্যাস্ট্রিক ও আলসার হওয়ার প্রবণতা অনেক কমিয়ে দেয়।

থানকুনিঃ

পেটের যেকোন পীড়া নির্মূলে এবং গ্যাস্ট্রিকের সমাধানে থানকুনি মহৌষধ হিসেবে কাজ করে।

তুলসীঃ

পেট ব্যাথা, অম্বল, গ্যাস, কোষ্ঠকাঠিন্য ইত্যাদি সবকিছুর বিরুদ্ধে তুলসী পাতা দারুণ কাজ করে।

আদাঃ

গ্যাস-অম্লের জন্য আদা খুবই উপকারি। ২০০৮ সালে ইউরোপিয়ান জার্নাল অফ গ্যাসট্রোএনটেরেলজি এন্ড হেপ্যাটোলজিতে প্রকাশিত তথ্যে বলা হয়েছে,নিয়মিত আদা খেলে হজম প্রক্রিয়া তরান্বিত এবং পেটের গ্যাস নিরাময় হয়।

ন্যাচারালস গ্যাস্ট্রিক নিরাময় প্যাকেজঃ

রেগুলার প্রাইস-৬৪০/

ডিস্কাউন্ট প্রাইস-৫৮০